লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ, কারা পাবে না , কি কি লাগবে Laxmi Bhandar Online Apply 2024

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ
লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ, কারা পাবে না , কি কি লাগবে Laxmi Bhandar Online Apply 2024

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ : পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় “লক্ষ্মী ভান্ডার ” প্রকল্পটি 2021 সালে চালু করেছিলেন। মহিলা ও শিশু উন্নয়ন ও সমাজকল্যাণ বিভাগ. পশ্চিমবঙ্গের সমস্ত মহিলাদের জন্য এই প্রকল্পের নাম “ লক্ষ্মীর ভান্ডার” ।এই প্রকল্পের মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গ সরকার অর্থনৈতিক দিক থেকে দুর্বল দরিদ্র প্রত্যেক পরিবারের প্রধান মহিলা সদস্যের প্রতি মাসের একটা নির্দিষ্ট আর্থিক সাহায্য দেওয়ার জন্যে লক্ষী ভান্ডার টি চালু করেছে।

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প মূল উদ্দেশ্য হলো পশ্চিমবঙ্গের মহিলাদের হাতে অর্থায়নের মাধ্যমে প্রতিটি পরিবারে আয়ের সংস্থান করা। এর ফলে সমাজে আরও বেশি অর্থের যোগান বাড়বে ও সেইসাথে অর্থনৈতিক ভাবে রাজ্যের অর্থনীতিতে বেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিচ্ছে। এই প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য ছিল প্রতিটি পরিবারের আর্থিক সংস্থান গড়ে তোলা।

এই প্রতিবেদনে লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ করবেন ? লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প কিভাবে আবেদন করবেন? লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম PDF download, লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প কারা পাবে না? লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের ফর্ম ফিলাপ করতে কি কি লাগবে ?আবেদনের যোগ্যতা ? লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম, লক্ষ্মীর ভান্ডার অনলাইন আবেদন, লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প অফলাইনে আবেদন কিভাবে করবেন ইত্যাদি বিষয়ে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করা হয়েছে।

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ কী ?

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ অনলাইন করার আগে এই প্রকল্প সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক , পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের মাধ্যমে প্রত্যেক পরিবারের মহিলা সদস্যের প্রতি মাসে একটা নির্দিষ্ট পরিমান আর্থিক সাহায্য তুলে দেওয়ার জন্যে এই প্রকল্পটি চালু করেছে।আপনি যদি পশ্চিমবঙ্গের একজন মহিলা সদস্য হয়ে থাকেন তাহলে আপনিও এই প্রকল্পের সুবিধা পেতে পারেন।

এই প্রকল্পে তপশিলি জাতি, আদিবাসী এবং জনজাতি পরিবারের মহিলারা এবং সাধারণ পরিবারের মহিলারা একটা নির্দিষ্ট বয়েসের পরে আবেদন করতে পারবে। লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ অনলাইন করলে সাধারণ পরিবারের মহিলারা প্রতি মাসে 500 টাকা করে পাবে এবং তপশিলি জাতি, আদিবাসী এবং জনজাতি পরিবারের মহিলারা প্রতি মাসে 1000 টাকা পাবে।

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ বিবরণ 

প্রকল্পের নাম লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প
কার দ্বারা প্রবর্তিত হয় পশ্চিমবঙ্গের মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
কবে চালু হয় 2021 সালের 30 শে জুলাই
উদ্দেশ্য কি প্রত্যেক মহিলা সদসকে আর্থিক দিক থেকে সাবলম্বী করে তোলা।
আবেদনের বয়স কত 25 থেকে 60 বছর।
স্ট্যাটাস চেক লিঙ্কআবেদনকারী স্থিতি পরীক্ষা করুন

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ বয়স কত ?

 লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের আবেদন করার জন্য আবেদনকারীর বয়স হতে হবে সর্বনিম্ন 25 বছর থেকে সর্বোচ্চ 60 বছরের মধ্যে।

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ যোগ্যতা (Lakshmir Bhandar Eligibility 2024 )

  • আবেদনকারী মহিলাদের অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।
  • এই প্রকল্পের সুবিধার জন্য শুধুমাত্র মহিলারা আবেদন করতে পারবেন।
  • আবেদনকারী মহিলার বয়স অবশ্যই 25 থেকে 60 বছরের মধ্যে হতে হবে।
  • যে সব মহিলারা সরকারি কোন কাজ করে তারা আবেদন করতে পারবেন না।
  • এছাড়া বাকি সব মহিলারা এই প্রকল্পের আবেদন করতে পারবেন।

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ কি কি ডকুমেন্ট লাগবে ?

আপনি যদি পশ্চিমবঙ্গের একজন মহিলা সদস্য হয়ে থাকেন তাহলে আপনি লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের আবেদন করতে পারবেন। তারজন্য লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের  ফর্ম ফিলাপ করার জন্য কী কী কাগজ বা নথিপত্র দরকার, তা নীচে উল্লেখ করা হলো-

  1. আধার কার্ডের জেরক্স,
  2. আধার কার্ডের জেরক্স
  3. রেশন কার্ডের জেরক্স 
  4. ব্যাঙ্কের পাশ বইয়ের জেরক্স,
  5. স্বাস্থ্যসাথী কার্ডের জেরক্স, (Swasthyasathi Card,যদি থাকে)
  6. SC/ST সার্টিফিকেট জেরক্স, (যদি থাকে)
  7. আয়ের শংসাপত্র,
  8. Income certificate,
  9. আবেদনকারীর রঙিন পাসপোর্ট সাইজের ছবি 2 কপি,

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম PDF

আপনি যদি , লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প আবেদন করতে চান ,এর যোগত্যার যে মানদণ্ড আছে তা সঠিক থাকতে হবে। আবেদনের জন্য কি কি নথিপত্ত্র লাগবে তা সঠিক থাকতে হবে। তারপতে আপনি লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প জন্য ফর্ম ফিলাপ করতে পারবেন। তো আপনি Application form ডাউনলোড করার জন্য এই প্রতিবেদনের নিচে লিংক দাওয়া আছে সেখান থেকে ডাউনলোডকরুন।

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ কিভাবে করবেন ? (laxmi bhandar form online apply)

পশ্চিমবঙ্গ সরকার রাজ্যের সমস্ত মহিলাদের সুবিধার জন্য পশ্চিমবঙ্গের মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 2021 সালের 30শে জুলাই লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে। এই প্রকল্পের আবেদন পদ্ধতি অনলাইন ও অফলাইন দুই রকম ভাবেই সম্পূর্ণ করতে পারবেন আপনি।চলুন এবার তাহলে দেখে নেওয়া যাক অফলাইন (Offline) ও অনলাইনে (Online) কীভাবে আবেদন প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করা হয়।

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ অনলাইন (Lakshmir Vandar Online Apply)

পশ্চিমবঙ্গের সমস্ত মহিলাদের জন্য যে লক্ষী ভান্ডার প্রকল্প চালু করা হয়েছে। কীভাবে আপনি লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের অনলাইনে আবেদন করবেন, চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক –

  • ধাপ 1: এই প্রকল্পে আবেদন করার জন্য প্রথমে আপনি গুগল ক্রমে গিয়ে লক্ষ্মীর ভাণ্ডার লিখে সার্চ দিলে, সরাসরি পশ্চিমবঙ্গ সরকারের ওয়েবসাইটিটি চলে আসবে। কেউ যদি সরাসরি এই ওয়েবসাইটেই ভিজিট করতে চান, তা হলে নীচের এই লিঙ্কে ক্লিক করতে পারেন।
  • লিঙ্ক: https://wb.gov.in/
  • ধাপ 2:  আবার কেউ সরাসরি পিডিএফ (PDF) ফরম্যাটে ফর্মটি (Application form)ডাউনলোড করতে পারেন। সে ক্ষেত্রে ডাউনলোড করার জন্য নিচে Application form এর লিঙ্ক দেওয়া আছে, সেখানে ক্লিক করতে পারেন।
  • ধাপ 3: এরপরে এই ফর্মটির একটি প্রিন্ট আউট বের করে নেবেন তারপরে সঠিক তথ্য দিয়ে তা পূরণ করতে হবে।
  • ধাপ 4 : যেখানে ছবি লাগানোর জন্য বক্স করা আছে, সেখানে আবেদনকারীর ছবি লাগবে।
  • ধাপ 5: তার পর প্রয়োজনীয় নথি সহ আবেদনের পত্রটি স্থানীয় পঞ্চায়েত অফিস কিংবা ওয়ার্ডে জমা করতে হবে 

কিভাবে লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প অফলাইনে ফর্ম ফিলাপ করবেন ?(Lakshmir Vandar Offline Apply)

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফ থেকে পুরো রাজ্য জুড়ে বিভিন্ন সময়ে নানা জায়গায় ‘দুয়ারে সরকার শিবিরের বা ক্যাম্পের’ আয়োজন করা হয়েছে । কেউ যদি লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের জন্য অফলাইনে আবেদন করতে চায়, তাহলে তাঁকে দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে এর লক্ষ্মীর ভাণ্ডার ক্যাম্পে যেতে হবে।(লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প 2024) 

  1. প্রথমে আপনি আপনার এলাকার দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে যান এবং সেখানে আবেদনপত্র সংগ্রহ করুন।
  2. লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পে আবেদন করার জন্য ক্যাম্প থেকে আবেদনকারীকে একটি অ্যাকটিভ ইউনিক নম্বর ফর্ম (Active Unique Number Form) সংগ্রহ করতে হবে।
ব্যক্তিগত বিবরণ (PERSONAL DETAILS:)
  • আবেদন ফর্মের বক্সে আবেদনকারীর স্বাস্থ্য সাথী কার্ড নম্বর এবং আধার নম্বর লিখতে হবে।
  • তারপর আবেদনকারীর নাম ।
  • আবেদনকারীর মোবাইল নম্বর।
  • আবেদনকারীর ইমেল আইডি, যদি থাকে।
  • আবেদনকারীর জন্ম তারিখ ।
  • আবেদনকারীর বয়স 01/01/2023 তারিখ অনুসারে লিখতে হবে।
  • তারপর বাবার নাম
  • মায়ের নাম *
  • স্বামী বা স্ত্রী নাম লিখতে হবে।
  • বর্ণের উপর টিক (✓)– SC/ST/অন্যান্য 
  • তারপর আবেদনকারী SC/ST শংসাপত্র নম্বর লিখুন (যদি আপনি একজন SC/ST শ্রেণীর মহিলা হন)
যোগাযোগের ঠিকানা (Contact Details)
  • রাজ্য* – পশ্চিমবঙ্গ 
  • জেলা* –  আপনার জেলার নাম লিখুন।
  • পুলিশ স্টেশন* – আপনার থানার নাম লিখুন।
  • ব্লক/মিউনিসিপ্যালিটি/কর্পোরেশন* – এখানে আপনার যেটি তার নাম লিখুন।
  • জিপি/ওয়ার্ড নং.* – আবেদনকারীর গ্রাম পঞ্চায়েতের নাম অথবা শব্দ নম্বর লিখুন।
  • গ্রাম/শহর/শহর* – আবেদনকারীর গ্রামের বা শহরের নাম লিখতে হবে।
  • বাড়ি/ প্রিমাইজ নং- আবেদনকারীর বাড়ির নম্বর/ প্রিমাইজ নম্বর থাকলে এই বক্সে লিখুন।
  • পোস্ট অফিস* – আবেদনকারীর পোস্ট অফিসের নাম হবে।
  • পিন কোড* – শেষে পোস্ট অফিসের পিন কোড লিখুন।
ব্যাংক অ্যাকাউন্ট বিবরণী (BANK ACCOUNT DETAILS)
  • ব্যাঙ্কের নাম* – আবেদনকারীর ব্যাঙ্কের নাম লিখুন 
  • ব্যাঙ্কের শাখার নাম* –  আবেদনকারীর ব্যাঙ্ক শাখার নাম লিখতে হবে।
  • ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নম্বর* – আবেদনকারীর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নম্বরটি সঠিকভাবে লিখুন।
  • IFS Code* – Yours Bank IFS কোড এই বক্সে IFS Code লিখুন।
এনক্লোসার তালিকা (স্ব-প্রত্যয়িত কপি) (দয়া করে (√ ) উপযুক্ত বাক্সে টিক দিন)

ফর্মের এই অংশে, আপনি আবেদন ফর্মের সাথে কোন নথিপত্র জমা দিয়েছেন সেগুলো টিক দিতে হবে।

  • রঙিন পাসপোর্ট সাইজের ছবি*
  • স্বাস্থ্যসাথী কার্ডের কপি, যদি থাকে 
  • আধার কার্ডের কপি * 
  • SC/ST সার্টিফিকেটের কপি
  • ব্যাঙ্ক পাস বুকের কপি
  • অন্যান্য

৭. স্ব ঘোষণাপত্রে তারিখ সহ আবেদনকারীকে স্বাক্ষর করতে হবে।

৮. তারপরে উল্লিখিত নথিপত্র সমেত এই Application Form টি সেই ক্যাম্পে গিয়ে জমা করতে হবে।

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম PDF / Application form (Laxmi Bhandar Form PDF download Bengali)

আপনি যদি , লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প আবেদন ফর্ম (Application form ) ডাউনলোড করতে চান , তাহলে নিচে ক্লিক করুন।

Lakshmir-Bhandar-Application-Form-Download

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ সুবিধা কি কি ?

  • লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পে আবেদন করার পরে প্রত্যেক মহিলারা প্রতিমাসে যে টাকা পাচ্ছেন।এই টাকা জীবন নির্ধারনের জন্য কিছুটা হলেও তাদের সাহার্য্য করছে।
  • লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পে সাধারণ ক্যাটাগরির অন্তর্ভুক্ত প্রত্যেক মহিলাদের রাজ্য সরকার প্রতিমাসে 500/- টাকা করে, বছরে 6,000 টাকা দিচ্ছে ।
  • এবং এসসি ও এসটি ক্যাটাগরির অন্তর্ভুক্ত লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের প্রত্যেক মহিলাদের প্রতিমাসে 1000/- টাকা করে, বছরে 12,000 টাকা দেওয়া হয়।

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প কারা পাবে না?

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের আওতায় যেসব মহিলা আবেদন করতে পারবেন না ,তারা হলেন সরকারি কর্মচারী অথবা অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী কেন্দ্র অথবা রাজ্যের, কোনও সরকারি নিয়ন্ত্রিত কোনও সংস্থার সাথে যুক্ত , পঞ্চায়েত, মিউনিসিপালিটি, শিক্ষক, শিক্ষাকর্মী, এছাড়াও সরকারি স্কুল গুলির ক্ষেত্রে কোনো মহিলা যদি নিয়মিত বেতন বা পেনশন পান। তাহলে তাঁরা এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন না।

স্বাস্থ্য সাথী কার্ড না থাকলে কি লক্ষীর ভান্ডার ফর্ম ফিলাপ হবে না?

আগে লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের আবেদন করার জন্য বাধ্যতামূলকভাবে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড লাগতো অথবা বলতে পারেন যে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড না থাকলে লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের আওতায় আবেদন করা যাবে না। তবে এখন স্বাস্থ্যসাথী (Swasthya Sathiকার্ড ছাড়াও আপনি  লক্ষ্মীর ভান্ডারের আবেদন করতে পারবেন। এই প্রকল্পের সুবিধা আপনি পাবেন। এমনই ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পঞ্চায়েত ভোটের প্রাক্কালে

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প স্ট্যাটাস চেক (Lakshmir Bhandar Status Check)

আপনি যদি লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ করে থাকেন ,তাহলে আপনি কিভাবে আপনার স্থিতি পরীক্ষা করবেন? আপনি কিভাবে বুজবেন যে আপনি টাকা পেয়েছেন কিনা ?তার জন্য আপনাকে লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প স্ট্যাটাস চেক করতে হবে। কিভাবে স্ট্যাটাস চেক করতে হবে তা নিয়ে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করা আছে , এখন থেকে স্ট্যাটাস চেক করুন

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ গুরুত্বপূর্ণ লিঙ্ক

লক্ষীর ভান্ডারফর্ম PDF / আবেদন ফর্ম
লক্ষীর ভান্ডার স্ট্যাটাস ট্র্যাক আবেদন স্থিতি

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ 2024 FAQ

Q . লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ কি কি নথিপত্র লাগবে ?

আধার কার্ডের জেরক্স, আধার কার্ডের জেরক্স, রেশন কার্ডের জেরক্স , ব্যাঙ্কের পাশ বইয়ের জেরক্স, স্বাস্থ্যসাথী কার্ডের জেরক্স, (Swasthyasathi Card,যদি থাকে), SC/ST সার্টিফিকেট জেরক্স, (যদি থাকে), আয়ের শংসাপত্র, Income certificate, আবেদনকারীর রঙিন পাসপোর্ট সাইজের ছবি 2 কপি .

Q . কিভাবে লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ করবেন ?

প্রথোম এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে এর আবেদন পত্র ডাউনলোড করে প্রিন্ট আউট করতে হবে। সঠিক তথ্য দিয়ে পূরণ করতে হবে। তারপরে আবেদন পত্র সহ নথিপত্র স্থানীয় পঞ্চায়েত অফিস কিংবা ওয়ার্ডে জমা করতে হবে.

Q . লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প ফর্ম ফিলাপ কত বয়স লাগবে ?

 লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের আবেদন করার জন্য আবেদনকারীর বয়স হতে হবে সর্বনিম্ন 25 বছর থেকে সর্বোচ্চ 60 বছরের মধ্যে।

Q . লক্ষ্মী ভান্ডার প্রকল্পের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট কোনটি ?

লক্ষ্মী ভান্ডার প্রকল্পের অফিসিয়াল পোর্টাল হল https://socialsecurity.wb.gov.in/।

আরও পড়ুন – Krishak Bandhu Status 2024 কৃষক বন্ধু টাকা কবে ঢুকবে।দ্বিতীয় কিস্তির টাকা কবে দিবে চেক লিস্ট 2024

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *